গরুর মাংসের কালো ভুনা

  • Post category:Recipe
  • Post last modified:09/08/2020

উপকরণ : গরুর মাংস ১ কেজি, সর্ষের তেল ১/৮ কাপ (মাংসে চর্বি থাকলে তেল কম করে নেবেন), পেঁয়াজ কুঁচি ১/২ কাপ, পেঁয়াজ বাটা ১/২ কাপ, মরিচ গুঁড়া ২ চা চামচ (ঝাল অনুযায়ী), হলুদ গুঁড়া ১/২ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ২ চা চামচ, জিরা গুঁড়া ১/২ চা চামচ, গরম মসলার গুঁড়া ১ চা চামচ (১/২ চা চামচ শুরুতে আর ১/২ চা চামচ নামানোর আগে), লবণ স্বাদমতো, টক দই ২ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ ৩/৪টি, এলাচ ৪/৫টি, দারুচিনি ২/৩ টুকরা, তেজপাতা ৩/৪টি, গোলমরিচ আস্ত ১ চা চামচ, লবঙ্গ ৫/৬টি। বাগারের জন্য :সর্ষের তেল ১/৮ কাপ, পেঁয়াজ কুঁচি ১ কাপ, শুকনা আস্ত মরিচ ৩/৪টি, আস্ত রসুনের কোয়া ১০/১২টি।

গরুর মাংসের কালো ভুনা

প্রণালি : কালো ভুনা করার জন্য গরুর মাংসের সব অংশ মিক্স করে হাড়সহ ১ কেজি মাংস নিবেন। মাংস থেকে পানি ঝরিয়ে নিয়ে পেঁয়াজ কুঁচি, পেঁয়াজ বাটা, সর্ষের তেল, গরম মসলা, লবণ, টকদই, কাঁচামরিচ, লালমরিচ গুঁড়া, হলুদ গুঁড়া, ধনে গুঁড়া, গরম মসলার গুঁড়া, আদা-রসুন বাটা সব মিক্স করে সঙ্গে ১/২ কাপ পানি দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। মাংসে পানি দরকার পড়বে না। তারপরও যদি দরকার পড়ে কষানোর জন্য, তাহলে পরিমাণমতো পানি দিবেন। মাংস কষিয়ে পানি বের হবে আর এই পানিতে মাংস সিদ্ধ হয়ে যাবে। মাঝে মাঝে মাংস নেড়ে দিতে হবে যেন কোনো ভাবে তলায় মসলা বা মাংস লেগে না যায়।

একপর্যায়ে যখন মাংস প্রায় সিদ্ধ হয়ে লবণ, মসলা সব ঠিকঠাক মতো হয়ে আসবে আর মসলাও মাখা মাখা হয়ে আসবে, ঠিক তখনই চুলার আঁচ একদম কম করে দিতে হবে। এভাবে প্রায় ঘণ্টাখানেক লাগতে পারে কালো ভুনা করতে। এরমাঝে মাংস নেড়ে উপর নিচ করে দিবেন কিন্তু কোনোভাবেই মসলা যেন পুড়ে না যায়।

কালোভুনা মানে কালো মাংস কিন্তু পুড়া মাংস নয়, সুতরাং সেটা খেয়াল রাখতে হবে। এরমাঝে ১ কাপ পানি দিয়ে আবার মাংস কষান। এভাবে কষাতে কষাতে দেখবেন মাংস কালো কালো হয়ে আসছে আর তেলও ছেড়ে দিয়েছে। তখন ১/২ চা চামচ জিরা গুঁড়া আর বাকি ১/২ চা চামচ গরম মসলার গুঁড়া মিশিয়ে নেবেন। চুলার আঁচ কিন্তু একই থাকবে। কোনোভাবেই বাড়ানো যাবে না। অন্য প্যানে এবার বাকি সর্ষের তেল গরম করে গোটা রসুন ভেজে, আস্ত শুকনা মরিচ দিন, হালকা ভেজে পেঁয়াজ দিয়ে দিন। পেঁয়াজ যখন বাদামি হয়ে আসবে, ঠিক তখন পেঁয়াজের বাগার কালোভুনায় ঢেলে দিন।

এবার ২/৩ মিনিট চুলায় রেখে নামিয়ে গরম গরম সাদা ভাত, পরোটা, পোলাও, নানের সঙ্গে পরিবেশন করুন চটগ্রামের ঐতিহ্যবাহী কালোভুনা। কালোভুনা একটু ঝাল ঝাল হয়। কেউ চাইলে ঝালের পরিমাণ কমিয়ে বাড়িয়ে নিতে পারেন।

শীতের পিঠা রেসিপি

শীতের পিঠা – শীতের আগমনী বার্তার সাথে সাথে বাংলার ঘরে ঘরে শীতের পিঠা তৈরীর উৎসব শুরু হয়। বিভিন্ন স্বাদের, বিভিন্ন ধরনের পিঠা ভোজন রসিকদের রসনা তৃপ্তিতে আবহমানকাল ধরেই প্রচলিত হয়ে আসছে। গ্রামে এখনো ঘরে ঘরে শীতের পিঠা তৈরী হলেও শহরের যান্ত্রিকতার ভীড়ে শীতের পিঠা হারিয়ে গেছেই বলা যায়। অনেকে আবার এসব ঐতিহ্যবাহী পিঠার প্রস্তুত প্রণালীর […]

ফিশ কাবাব

উপকরণ : ভেটকি মাছ,পেয়াজ,আদা বাটা,রসুন বাটা,গরম মসলা গুড়া,ধনেপাতা কুচি,পুদিনা পাতা কুচি,মরিচের গুড়া,বেসন,পাতি লেবুর রস,ঘি বা তেল ,কিসমিস ও ডিম। ফিশ কাবাব প্রণালি : ১. প্রথমে মাছ সেদ্ধ করে কাটা বেছে পিষে নিন। ২. তার সাথে পেয়াজ, আদা ও রসুন বেটে নিন। ৩. এবার চুলায় হাড়ি চাপিয়ে তেল বা ঘি দিয়ে পিষা মাছ, মসলা, মরিচের গুড়া […]

ঢেঁড়স ও চিংড়ি রেসিপি

উপকরণ ৫০০ গ্রাম ‏ঢেড়স, ১” করে কাটা ১/২ কাপ ‏চিংড়ি, মাঝারি বা ছোট সাইজের ২ টেবিল চামচ ‏পেয়াজ কুচি ৫-৭ টি ‏কাচা মরিচ ফালি ১/২ চা চামচ ‏হলুদ গুড়া ১ চা চামচ ‏জিরা গুড়া ২ টেবিল চামচ ‏সয়াবিন তেল পরিমান মত ‏লবণ প্রস্তুত-প্রনালী: একটি পাত্রে তেল নিয়ে গরম হতে দিন। গরম হয়ে গেলে এর মধ্যে পেয়াজ ও কাচা মরিচ ফালি দিয়ে একটু ভাজুন। […]

চাইনিজ নুডুলস

যা যা লাগবে-নুডুলস সিদ্ধ-২ কাপমুরগির মাংস পাতলা করে কাটা-প্রায় ১ কাপপেঁয়াজ কুচি-১/২ কাপআদা মিহি কুচি-৪ টেবিল চামচরসুন কুচি-৪ টেবিল চামচমাশরুম কুচি-১/২ কাপশুকনো মরিচ গুড়া-১ চা চামচ চাইনিজ নুডুলস গোলমরিচ গুড়া-১ চা চামচলবণ-স্বাদমতোপছন্দমতো সবজিকাঁচামরিচ কুচিধনেপাতা কুচিসসের জন্য-সয়াসস-৪টেবিল চামচওয়েস্টার সস-১ টেবিল চামচসুইট চিলি সস-১ টেবিল চামচ যেভাবে করবেন-পাতিলে তেল দিয়ে এতে আদা ও রসুন কুচি দিয়ে ভেজে […]

রসমালাই রেসিপি

রসমালাই নামটা শুনেই আপনার জীভে জল আসছে নিশ্চই । আপনি যদি পশ্চিমবঙ্গে থাকেন তবে এক্ষুনি দোকান থেকে রসমালাই কিনে এনে তাড়িয়ে তাড়িয়ে খাবেন । কিন্তু আপনার বাস যদি পশ্চিমবঙ্গের বাইরে হয় তবে এই গরমে রোদে পুড়তে পুড়তে বাঙ্গালীপাড়ায় যেতে হবে রসমালাইর খোঁজে । যদি সাতসমুদ্র তেরো নদীর পাড়ে থাকেন তাহলে তো ছবিদেখে আর কবে রসমালাই […]

গরুর মাংসের কালো ভুনা